ঢাকা ০১:৪১ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিমানবন্দরে ময়লার ঝুড়িতে মিলল ৭০ লাখ টাকার সোনা

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১১:২৯:৫৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪ ১৩ বার পড়া হয়েছে
ডেইলি আর্থ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

চট্টগ্রাম শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সিগারেটের প্যাকেট থেকে ৮১৬ গ্রাম ওজনের ৭টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা এসব স্বর্ণের বাজারমূল্য ৭০ লাখ টাকা।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আন্তর্জাতিক আগমনী ১ নম্বর কনভেয়ার বেল্টের পাশের ওয়াশরুমের কমোডের ময়লার ঝুড়ি থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় এসব স্বর্ণ পাওয়া যায়।

বিমানবন্দর সূত্র জানিয়েছে, সোনার বারগুলো ওয়াশরুমের ভেতরে থাকা ময়লার ঝুড়ির ভেতর একটি সিগারেটের প্যাকেটে লুকায়িত ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, সোনার বারগুলো এয়ার এরাবিয়া এয়ারলাইন্সের জি৯-৫২০-এ করে বিমানবন্দরে কোনো যাত্রী এনে থাকতে পারে। প্রতিটি বারের ওজন ১০ ভরি দুই গ্রাম। প্রতিটির মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা করে।

চট্টগ্রাম শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের রাজস্ব কর্মকর্তা আল আমিন প্রধান গণমাধ্যমকে বলেন, গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই এবং শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে সাতটি সোনার বার উদ্ধার করেছে। পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা এসব সোনার ওজন ৮১৬ গ্রাম। যার বাজারমূল্য প্রায় ৭০ লাখ টাকা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বিমানবন্দরে ময়লার ঝুড়িতে মিলল ৭০ লাখ টাকার সোনা

আপডেট সময় : ১১:২৯:৫৪ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১১ মে ২০২৪

চট্টগ্রাম শাহ্ আমানত আন্তর্জাতিক বিমানবন্দরে সিগারেটের প্যাকেট থেকে ৮১৬ গ্রাম ওজনের ৭টি স্বর্ণের বার উদ্ধার করা হয়েছে। উদ্ধার করা এসব স্বর্ণের বাজারমূল্য ৭০ লাখ টাকা।

শুক্রবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে আন্তর্জাতিক আগমনী ১ নম্বর কনভেয়ার বেল্টের পাশের ওয়াশরুমের কমোডের ময়লার ঝুড়ি থেকে পরিত্যক্ত অবস্থায় এসব স্বর্ণ পাওয়া যায়।

বিমানবন্দর সূত্র জানিয়েছে, সোনার বারগুলো ওয়াশরুমের ভেতরে থাকা ময়লার ঝুড়ির ভেতর একটি সিগারেটের প্যাকেটে লুকায়িত ছিল। ধারণা করা হচ্ছে, সোনার বারগুলো এয়ার এরাবিয়া এয়ারলাইন্সের জি৯-৫২০-এ করে বিমানবন্দরে কোনো যাত্রী এনে থাকতে পারে। প্রতিটি বারের ওজন ১০ ভরি দুই গ্রাম। প্রতিটির মূল্য প্রায় ১০ লাখ টাকা করে।

চট্টগ্রাম শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তরের রাজস্ব কর্মকর্তা আল আমিন প্রধান গণমাধ্যমকে বলেন, গোয়েন্দা সংস্থা এনএসআই এবং শুল্ক গোয়েন্দা ও তদন্ত অধিদপ্তর যৌথভাবে অভিযান পরিচালনা করে সাতটি সোনার বার উদ্ধার করেছে। পরিত্যক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা এসব সোনার ওজন ৮১৬ গ্রাম। যার বাজারমূল্য প্রায় ৭০ লাখ টাকা।