ঢাকা ১২:৪৭ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

বিবিসির বিশ্লেষণ

ইসরায়েল-ইরানের পাল্টাপাল্টি হামলা, দীর্ঘদিনের ছায়াযুদ্ধ প্রকাশ্যে

অনলাইন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ১১:১২:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪ ১৩ বার পড়া হয়েছে
ডেইলি আর্থ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দুই চিরশত্রু ইরান-ইসরায়েল দীর্ঘদিন ধরেই ছায়াযুদ্ধে লিপ্ত। কিন্তু দেশ দুটির মধ্যে সাম্প্রতিক পাল্টাপাল্টি হামলায় সেই ছায়াযুদ্ধ প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন বিবিসির আন্তর্জাতিক সম্পাদক জেরেমি বোয়েন।

জেরেমি বোয়েন বলেন, ‘ইরানের মাটিতে ইসরায়েলের পাল্টা হামলার ঘটনাটিকে বেশ খাটো করেই দেখাতে চাইছে ইরানিরা। যেন এর বিশেষ তাৎপর্য নেই।

তারা দাবি করছে, কোনো হামলাই হয়নি। ক্ষুদ্রাকৃতির ড্রোনের রম্য ছবি প্রচার করছে ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম।’ ‘তবে কয়েকটি প্রশ্ন সামনে আসছে। ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের অপেক্ষাকৃত কট্টর অংশ কি পাল্টা জবাব দেবে? ইসরায়েল কি আরো হামলার পরিকল্পনা করছে?’
জেরেমি বোয়েন আরো বলেন, ‘ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর সঙ্গে এরই মধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দূরত্ব বেড়েছে।

সেই দূরত্ব হয়তো আর বাড়াতে চাননি নেতানিয়াহু। সে কারণে এ ধরনের হামলার পদক্ষেপ নিয়ে থাকতে পারেন তিনি। ইরানের শনিবারের হামলার জবাবে ইসরায়েলকে আর পাল্টা হামলা না চালাতে বলেছিলেন বাইডেন। যুক্তরাজ্যসহ অন্য মিত্ররাও যার যার জায়গা থেকে সংযত থাকার আহ্বান জানিয়েছিল।

‘যদি এই আক্রমণ তারই প্রতিফলন হয়, তাহলে আরেকটা প্রশ্ন সামনে আসে। এটা কি ইসরায়েলের যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভায় থাকা সাবেক জেনারেলদের প্রত্যাশা অনুযায়ী যথেষ্ট শক্ত পদক্ষেপ হলো? ইসরায়েলের শত্রুদের নিরস্ত করতে যে পদক্ষেপ জরুরি বলে মনে করছিলেন তাঁরা। নেতানিয়াহুর অতি জাতীয়তাবাদী শরিকরাও একটা জোরালো প্রতিশোধের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। একজন তো বলেই বসেন, ইসরায়েলের ‘নৃশংস’ হওয়া উচিত।

বিবিসির এই বিশ্লেষক আরো বলেন, ‘পশ্চিমা দেশগুলোর মতে, ইরান ও ইসরায়েলের পাল্টাপাল্টি পদক্ষেপের ইতি টানা উচিত।

এই আক্রমণের শুরুটা হয় দামেস্কে ইরানি কূটনৈতিক স্থাপনায় ইসরায়েলের হামলার মধ্য দিয়ে। ওই হামলায় অন্তত সাতজন মারা যান। এমনকি এই পর্যায়ে এসেও যদি ঘটনাপ্রবাহটা থামে, তাতেও নতুন দৃষ্টান্ত কিন্তু স্থাপিত হয়েই গেল। ইরান সরাসরি ইসরায়েলি ভূখণ্ডে হামলা চালিয়েছে, জবাবে ইরানের ভূখণ্ডে সরাসরি হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল, যা আগে কখনো ঘটেনি।’

‘ইরান ও ইসরায়েলের মধ্যে দীর্ঘদিনের সংঘাতে দুই দেশের অভ্যন্তরে সরাসরি হামলা না চালানোটাই যেন ‘রুলস অব দ্য গেম’ (খেলার নিয়ম) ছিল এত দিন। তাই দুই দেশের মধ্যে দীর্ঘদিনের ছদ্মবেশী সেই যুদ্ধ ছায়া থেকে এবার প্রকাশ্যে বেরিয়ে এলো।’

সূত্র : বিবিসি

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

বিবিসির বিশ্লেষণ

ইসরায়েল-ইরানের পাল্টাপাল্টি হামলা, দীর্ঘদিনের ছায়াযুদ্ধ প্রকাশ্যে

আপডেট সময় : ১১:১২:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ২০ এপ্রিল ২০২৪

দুই চিরশত্রু ইরান-ইসরায়েল দীর্ঘদিন ধরেই ছায়াযুদ্ধে লিপ্ত। কিন্তু দেশ দুটির মধ্যে সাম্প্রতিক পাল্টাপাল্টি হামলায় সেই ছায়াযুদ্ধ প্রকাশ্যে রূপ নিয়েছে বলে জানিয়েছেন বিবিসির আন্তর্জাতিক সম্পাদক জেরেমি বোয়েন।

জেরেমি বোয়েন বলেন, ‘ইরানের মাটিতে ইসরায়েলের পাল্টা হামলার ঘটনাটিকে বেশ খাটো করেই দেখাতে চাইছে ইরানিরা। যেন এর বিশেষ তাৎপর্য নেই।

তারা দাবি করছে, কোনো হামলাই হয়নি। ক্ষুদ্রাকৃতির ড্রোনের রম্য ছবি প্রচার করছে ইরানের রাষ্ট্রীয় সংবাদমাধ্যম।’ ‘তবে কয়েকটি প্রশ্ন সামনে আসছে। ইরানের রেভল্যুশনারি গার্ডের অপেক্ষাকৃত কট্টর অংশ কি পাল্টা জবাব দেবে? ইসরায়েল কি আরো হামলার পরিকল্পনা করছে?’
জেরেমি বোয়েন আরো বলেন, ‘ইসরায়েলের প্রধানমন্ত্রী নেতানিয়াহুর সঙ্গে এরই মধ্যে মার্কিন প্রেসিডেন্ট জো বাইডেনের দূরত্ব বেড়েছে।

সেই দূরত্ব হয়তো আর বাড়াতে চাননি নেতানিয়াহু। সে কারণে এ ধরনের হামলার পদক্ষেপ নিয়ে থাকতে পারেন তিনি। ইরানের শনিবারের হামলার জবাবে ইসরায়েলকে আর পাল্টা হামলা না চালাতে বলেছিলেন বাইডেন। যুক্তরাজ্যসহ অন্য মিত্ররাও যার যার জায়গা থেকে সংযত থাকার আহ্বান জানিয়েছিল।

‘যদি এই আক্রমণ তারই প্রতিফলন হয়, তাহলে আরেকটা প্রশ্ন সামনে আসে। এটা কি ইসরায়েলের যুদ্ধকালীন মন্ত্রিসভায় থাকা সাবেক জেনারেলদের প্রত্যাশা অনুযায়ী যথেষ্ট শক্ত পদক্ষেপ হলো? ইসরায়েলের শত্রুদের নিরস্ত করতে যে পদক্ষেপ জরুরি বলে মনে করছিলেন তাঁরা। নেতানিয়াহুর অতি জাতীয়তাবাদী শরিকরাও একটা জোরালো প্রতিশোধের দাবি জানিয়ে আসছিলেন। একজন তো বলেই বসেন, ইসরায়েলের ‘নৃশংস’ হওয়া উচিত।

বিবিসির এই বিশ্লেষক আরো বলেন, ‘পশ্চিমা দেশগুলোর মতে, ইরান ও ইসরায়েলের পাল্টাপাল্টি পদক্ষেপের ইতি টানা উচিত।

এই আক্রমণের শুরুটা হয় দামেস্কে ইরানি কূটনৈতিক স্থাপনায় ইসরায়েলের হামলার মধ্য দিয়ে। ওই হামলায় অন্তত সাতজন মারা যান। এমনকি এই পর্যায়ে এসেও যদি ঘটনাপ্রবাহটা থামে, তাতেও নতুন দৃষ্টান্ত কিন্তু স্থাপিত হয়েই গেল। ইরান সরাসরি ইসরায়েলি ভূখণ্ডে হামলা চালিয়েছে, জবাবে ইরানের ভূখণ্ডে সরাসরি হামলা চালিয়েছে ইসরায়েল, যা আগে কখনো ঘটেনি।’

‘ইরান ও ইসরায়েলের মধ্যে দীর্ঘদিনের সংঘাতে দুই দেশের অভ্যন্তরে সরাসরি হামলা না চালানোটাই যেন ‘রুলস অব দ্য গেম’ (খেলার নিয়ম) ছিল এত দিন। তাই দুই দেশের মধ্যে দীর্ঘদিনের ছদ্মবেশী সেই যুদ্ধ ছায়া থেকে এবার প্রকাশ্যে বেরিয়ে এলো।’

সূত্র : বিবিসি