ঢাকা ০১:৪৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

শান্তির খোঁজে হিমালয়ে সুপারস্টার রজনীকান্ত

বিনোদন ডেস্ক
  • আপডেট সময় : ০৩:২১:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ জুন ২০২৪ ৫ বার পড়া হয়েছে
ডেইলি আর্থ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দক্ষিণী সিনেমার সুপার স্টার তিনি, সেই সঙ্গে তাকে এ সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির ঈশ্বরও বলা হয়- তিনি হলেন রজনীকান্ত। তার নামেই সিনেমা সুপারহিট হয়ে যায়।

রজনীকান্তের সত্তরের গণ্ডি পারও হলেও স্টাইল আইকন হিসেবে তাকে গণ্য করে সবাই। এই কিংবদন্তি তারকা রজনীকান্ত হাসিমুখে দাঁড়িয়ে আছেন হিমালয় পর্বতের সামনে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়েছে সেই ছবি।

তবে ছবি আসল নাকি ফটোশপ করা, তা জানা যায়নি। কিন্তু তার ভক্ত-অনুরাগীদের মাঝে প্রশ্ন উঠছে, শান্তির খোঁজেই কি হিমালয়ের কোলে এসেছেন দক্ষিণী সিনেমার এ শক্তিমান অভিনেতা!

ভাইরাল হওয়া ছবিতে রজনীকান্তকে সাদা লুঙ্গি ও সাদা জামা পরে হাসিমুখে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। গায়ে জড়ানো শাল। সুপারস্টারের চোখে রয়েছে কালো চশমা। আর মুখে চেনা হাসি। পিছনে রয়েছে সুবিশাল হিমালয় পর্বতমালা।

কিন্তু সত্যিই কি হিমালয়ের কোলে শান্তির খোঁজে গিয়েছেন সুপারস্টার? আসলে প্রতিবছর কেদারনাথ ও বদরিনাথ দর্শনে যান রজনীকান্ত। জানা যাচ্ছে, এবারও সেই সফরে গিয়েছেন তিনি। তারই মাঝে হয়েছেন ক্যামেরাবন্দি।

গত বছর উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের পা ছুঁয়ে প্রণাম করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন রজনীকান্ত। যে রজনীকান্তের সিনেমা রিলিজ হলেই স্কুল কেটে, অফিস কামাই করে প্রেক্ষাগৃহে হুল্লোড় করেন অনুরাগীরা, সেই রজনীকান্ত কেনো কুড়ি বছরেরও বেশি ছোট যোগীর পা ছুঁতে গেলেন? এমন প্রশ্ন উঠেছিল। সোশাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড় বয়ে গিয়েছিল।

পরে এই বিতর্কের জবাব দিয়ে রজনীকান্ত বলেছিলেন, ‘সন্ন্যাসী বা যোগীকে সবসময়ই পা ছুঁয়ে প্রণাম করি। তা সে ছোট হোক বা বড় হোক। সে যে প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেই যুক্ত থাক না কেন, আমি তাকে এভাবেই সম্মান করি।’ ভক্তিভাবে বিশ্বাস সুপারস্টারের। তাই তো প্রতিবার কেদারনাথ, বদরিনাথে যান। এবার অবশ্য সমালোচনা নয়, প্রশংসাই হয়েছে তার। এত বড় সুপারস্টার হয়েও কত সাধারণ রজনী! ছবি দেখে এমনটাই বলছেন নেট নাগরিকরা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

শান্তির খোঁজে হিমালয়ে সুপারস্টার রজনীকান্ত

আপডেট সময় : ০৩:২১:১৬ অপরাহ্ন, রবিবার, ২ জুন ২০২৪

দক্ষিণী সিনেমার সুপার স্টার তিনি, সেই সঙ্গে তাকে এ সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির ঈশ্বরও বলা হয়- তিনি হলেন রজনীকান্ত। তার নামেই সিনেমা সুপারহিট হয়ে যায়।

রজনীকান্তের সত্তরের গণ্ডি পারও হলেও স্টাইল আইকন হিসেবে তাকে গণ্য করে সবাই। এই কিংবদন্তি তারকা রজনীকান্ত হাসিমুখে দাঁড়িয়ে আছেন হিমালয় পর্বতের সামনে। সোশ্যাল মিডিয়ায় ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়েছে সেই ছবি।

তবে ছবি আসল নাকি ফটোশপ করা, তা জানা যায়নি। কিন্তু তার ভক্ত-অনুরাগীদের মাঝে প্রশ্ন উঠছে, শান্তির খোঁজেই কি হিমালয়ের কোলে এসেছেন দক্ষিণী সিনেমার এ শক্তিমান অভিনেতা!

ভাইরাল হওয়া ছবিতে রজনীকান্তকে সাদা লুঙ্গি ও সাদা জামা পরে হাসিমুখে দাঁড়িয়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে। গায়ে জড়ানো শাল। সুপারস্টারের চোখে রয়েছে কালো চশমা। আর মুখে চেনা হাসি। পিছনে রয়েছে সুবিশাল হিমালয় পর্বতমালা।

কিন্তু সত্যিই কি হিমালয়ের কোলে শান্তির খোঁজে গিয়েছেন সুপারস্টার? আসলে প্রতিবছর কেদারনাথ ও বদরিনাথ দর্শনে যান রজনীকান্ত। জানা যাচ্ছে, এবারও সেই সফরে গিয়েছেন তিনি। তারই মাঝে হয়েছেন ক্যামেরাবন্দি।

গত বছর উত্তরপ্রদেশের মুখ্যমন্ত্রী যোগী আদিত্যনাথের পা ছুঁয়ে প্রণাম করে বিতর্কের মুখে পড়েছিলেন রজনীকান্ত। যে রজনীকান্তের সিনেমা রিলিজ হলেই স্কুল কেটে, অফিস কামাই করে প্রেক্ষাগৃহে হুল্লোড় করেন অনুরাগীরা, সেই রজনীকান্ত কেনো কুড়ি বছরেরও বেশি ছোট যোগীর পা ছুঁতে গেলেন? এমন প্রশ্ন উঠেছিল। সোশাল মিডিয়ায় নিন্দার ঝড় বয়ে গিয়েছিল।

পরে এই বিতর্কের জবাব দিয়ে রজনীকান্ত বলেছিলেন, ‘সন্ন্যাসী বা যোগীকে সবসময়ই পা ছুঁয়ে প্রণাম করি। তা সে ছোট হোক বা বড় হোক। সে যে প্রতিষ্ঠানের সঙ্গেই যুক্ত থাক না কেন, আমি তাকে এভাবেই সম্মান করি।’ ভক্তিভাবে বিশ্বাস সুপারস্টারের। তাই তো প্রতিবার কেদারনাথ, বদরিনাথে যান। এবার অবশ্য সমালোচনা নয়, প্রশংসাই হয়েছে তার। এত বড় সুপারস্টার হয়েও কত সাধারণ রজনী! ছবি দেখে এমনটাই বলছেন নেট নাগরিকরা।