ঢাকা ১২:৩৬ পূর্বাহ্ন, শনিবার, ১৫ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

সার্ক মহাসচিবের ভারত-পাকিস্তান সফর

প্রতিনিধির নাম
  • আপডেট সময় : ১২:৪২:৩৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪ ৮ বার পড়া হয়েছে
ডেইলি আর্থ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থার মহাসচিব রাষ্ট্রদূত মো. গোলাম সারওয়ার ইসলামাবাদে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী মুহাম্মদ শেহবাজ শরীফের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

বৈঠকে মহাসচিব পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে সার্কের কার্যক্রমের সাম্প্রতিক অগ্রগতি সম্পর্কে অবহিত করেন এবং সার্ক প্রক্রিয়াকে আরও গতিশীল করার জন্য সদস্য রাষ্ট্রের আন্তরিক প্রচেষ্টার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ার জনগণের জন্য আঞ্চলিক সহযোগিতার বিস্তৃত সুবিধাগুলোর কথা উল্লেখ করে সার্ককে শক্তিশালী করার জন্য পাকিস্তানের দৃঢ় প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন এবং সার্ক প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য মহাসচিবকে পূর্ণ সমর্থনের আশ্বাস দেন।

তিনি শিগগিরই ১৯তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলন আয়োজনের জন্য পাকিস্তানের আকাঙ্ক্ষার কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। সার্কের মহাসচিব গত ২০-২৪ মে পর্যন্ত পাকিস্তানে একটি পরিচায়কমূলক সফরে ছিলেন।

সার্কের সদস্য দেশগুলোর চলমান সফরের অংশ হিসাবে মহাসচিবের আগে ১১-১৪ মে ২০২৪ পর্যন্ত ভারত সফর করেন। তিনি ভারতীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী রাজকুমার রঞ্জন সিংয়ের সঙ্গে সার্কের চলমান কার্যক্রম এবং এর অগ্রগতি সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

এছাড়াও তিনি ভারতের পররাষ্ট্র সচিব রাষ্ট্রদূত শ্রী বিনয় মোহন কোয়াত্রা, সচিব (পূর্ব) রাষ্ট্রদূত জয়দীপ মজুমদার এবং ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে সার্কের সার্বিক অগ্রগতি ও ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন। ভারতীয় নেতা এবং উচ্চপদস্থ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা সার্ক প্রক্রিয়ার প্রতি ভারতীয় পূর্ণ অঙ্গীকারের কথা পূনর্ব্যক্ত করেন এবং সার্ককে আরও গতিশীল করার জন্য মহাসচিবকে তার প্রচেষ্টার জন্য পূর্ণ সমর্থনের আশ্বাস দেন।

তার ভারত সফরের সময়, মহাসচিব রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ার নেতৃত্বস্থানীয় থিঙ্ক ট্যাঙ্ক দ্য ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন আয়োজিত তৃতীয় শক্তি সিনহা মেমোরিয়াল লেকচারে সার্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দেন এবং দিল্লিস্থ রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম (আরআইএস)-এর ফ্যাকাল্টি সদস্যদের সাথে মতবিনিময় করেন।

তাছাড়া ইসলামাবাদ সফরের সময় সার্ক মহাসচিব পাকিস্তানের পররাষ্ট্র সচিব রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ সাইরাস সাজ্জাদ কাজী এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন। তারা সার্কের বর্তমান কর্মকাণ্ড নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন এবং সার্ককে আরও গতিশীল করার জন্য ভবিষ্যতের প্রয়াস নিয়ে এবং এই অঞ্চলের কল্যাণে এর পূর্ণ সম্ভাবনাকে বাস্তবায়িত করার বিষয়ে ধারণা ও মতবিনিময় করেন।

এছাড়াও সার্ক মহাসচিব ইনস্টিটিউট অফ স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ ইসলামাবাদে দক্ষিণ এশিয়ায় আঞ্চলিক সহযোগিতার সম্ভাবনা এবং চ্যালেঞ্জগুলোর ওপর বক্তব্য দেন এবং ইসলামাবাদস্থ ইনস্টিটিউট অব রিসার্চ অ্যান্ড স্টাডিজ একটি প্যানেল আলোচনায় যোগ দেন। সার্ক সচিবালয় সংগঠনের চার্টারে বর্ণিত উদ্দেশ্যসমূহ অর্জনের প্রক্রিয়াকে শক্তিশালী করার জন্য বর্তমান চেয়ারম্যান নেপালের সঙ্গে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

সার্ক মহাসচিবের ভারত-পাকিস্তান সফর

আপডেট সময় : ১২:৪২:৩৮ অপরাহ্ন, বৃহস্পতিবার, ৬ জুন ২০২৪

দক্ষিণ এশীয় আঞ্চলিক সহযোগিতা সংস্থার মহাসচিব রাষ্ট্রদূত মো. গোলাম সারওয়ার ইসলামাবাদে পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী মুহাম্মদ শেহবাজ শরীফের সঙ্গে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেছেন।

বৈঠকে মহাসচিব পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীকে সার্কের কার্যক্রমের সাম্প্রতিক অগ্রগতি সম্পর্কে অবহিত করেন এবং সার্ক প্রক্রিয়াকে আরও গতিশীল করার জন্য সদস্য রাষ্ট্রের আন্তরিক প্রচেষ্টার প্রয়োজনীয়তার ওপর জোর দেন।

পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী দক্ষিণ এশিয়ার জনগণের জন্য আঞ্চলিক সহযোগিতার বিস্তৃত সুবিধাগুলোর কথা উল্লেখ করে সার্ককে শক্তিশালী করার জন্য পাকিস্তানের দৃঢ় প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেন এবং সার্ক প্রক্রিয়াকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার জন্য মহাসচিবকে পূর্ণ সমর্থনের আশ্বাস দেন।

তিনি শিগগিরই ১৯তম সার্ক শীর্ষ সম্মেলন আয়োজনের জন্য পাকিস্তানের আকাঙ্ক্ষার কথা পুনর্ব্যক্ত করেন। সার্কের মহাসচিব গত ২০-২৪ মে পর্যন্ত পাকিস্তানে একটি পরিচায়কমূলক সফরে ছিলেন।

সার্কের সদস্য দেশগুলোর চলমান সফরের অংশ হিসাবে মহাসচিবের আগে ১১-১৪ মে ২০২৪ পর্যন্ত ভারত সফর করেন। তিনি ভারতীয় পররাষ্ট্র প্রতিমন্ত্রী রাজকুমার রঞ্জন সিংয়ের সঙ্গে সার্কের চলমান কার্যক্রম এবং এর অগ্রগতি সম্পর্কে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন।

এছাড়াও তিনি ভারতের পররাষ্ট্র সচিব রাষ্ট্রদূত শ্রী বিনয় মোহন কোয়াত্রা, সচিব (পূর্ব) রাষ্ট্রদূত জয়দীপ মজুমদার এবং ভারতীয় পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে সার্কের সার্বিক অগ্রগতি ও ভবিষ্যৎ কর্মপন্থা নিয়ে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন। ভারতীয় নেতা এবং উচ্চপদস্থ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা সার্ক প্রক্রিয়ার প্রতি ভারতীয় পূর্ণ অঙ্গীকারের কথা পূনর্ব্যক্ত করেন এবং সার্ককে আরও গতিশীল করার জন্য মহাসচিবকে তার প্রচেষ্টার জন্য পূর্ণ সমর্থনের আশ্বাস দেন।

তার ভারত সফরের সময়, মহাসচিব রাষ্ট্রদূত গোলাম সারওয়ার নেতৃত্বস্থানীয় থিঙ্ক ট্যাঙ্ক দ্য ইন্ডিয়া ফাউন্ডেশন আয়োজিত তৃতীয় শক্তি সিনহা মেমোরিয়াল লেকচারে সার্কের ভবিষ্যৎ নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ ভাষণ দেন এবং দিল্লিস্থ রিসার্চ অ্যান্ড ইনফরমেশন সিস্টেম (আরআইএস)-এর ফ্যাকাল্টি সদস্যদের সাথে মতবিনিময় করেন।

তাছাড়া ইসলামাবাদ সফরের সময় সার্ক মহাসচিব পাকিস্তানের পররাষ্ট্র সচিব রাষ্ট্রদূত মুহাম্মদ সাইরাস সাজ্জাদ কাজী এবং পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের অন্যান্য ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে ফলপ্রসূ আলোচনা করেন। তারা সার্কের বর্তমান কর্মকাণ্ড নিয়ে গুরুত্বপূর্ণ আলোচনা করেন এবং সার্ককে আরও গতিশীল করার জন্য ভবিষ্যতের প্রয়াস নিয়ে এবং এই অঞ্চলের কল্যাণে এর পূর্ণ সম্ভাবনাকে বাস্তবায়িত করার বিষয়ে ধারণা ও মতবিনিময় করেন।

এছাড়াও সার্ক মহাসচিব ইনস্টিটিউট অফ স্ট্র্যাটেজিক স্টাডিজ ইসলামাবাদে দক্ষিণ এশিয়ায় আঞ্চলিক সহযোগিতার সম্ভাবনা এবং চ্যালেঞ্জগুলোর ওপর বক্তব্য দেন এবং ইসলামাবাদস্থ ইনস্টিটিউট অব রিসার্চ অ্যান্ড স্টাডিজ একটি প্যানেল আলোচনায় যোগ দেন। সার্ক সচিবালয় সংগঠনের চার্টারে বর্ণিত উদ্দেশ্যসমূহ অর্জনের প্রক্রিয়াকে শক্তিশালী করার জন্য বর্তমান চেয়ারম্যান নেপালের সঙ্গে নিরলসভাবে কাজ করে যাচ্ছে।