ঢাকা ১১:৪১ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টানা দ্বিতীয় জয়ে চোখ বাংলাদেশের

স্পোর্টস রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১১:০১:২১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৫ মে ২০২৪ ১০ বার পড়া হয়েছে
ডেইলি আর্থ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

প্রথম ম্যাচে জয় পাওয়ায় দ্বিতীয় ম্যাচেও টানা জয় চায় বাংলাদেশ। আজ সন্ধ্যা ৬টায় চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ তে মুখোমুখি হবে দুই দল। টানা দুই জয়ে সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ নাকি জয় দিয়ে সমতা ফেরাবে জিম্বাবুয়ে, জানা যাবে আজই।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে নিজেদের প্রস্তুত করতে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ দল। ইতোমধ্যে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে টাইগাররা ৮ উইকেটে বড় জয় পেয়েছিল। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে আজ (রোববার) সন্ধ্যা ৬টায় সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হচ্ছে দু’দল।

প্রথম ম্যাচে দারুণ বোলিং করেন দুই তারকা পেসার সাইফউদ্দিন ও তাসকিন আহমেদ। দুই জনে নেন ৩টি করে উইকেট। ২ উইকেট নেন শেখ মাহেদি হাসান। তাদের বোলিং তোপে ২০ ওভারে মাত্র ১২৪ রানেই অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন ক্লেভ ম্যাডানড। ৩৪ রান করেন ওয়েলিংটন মাসাকাদজা।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে তানজিদ হাসান তামিম ও তাওহিদ হৃদয়ের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে ২৮ বল হাতে রেখেই ৮ উইকেটের দাপুটে জয় পায় বাংলাদেশ। দলের জয়ে ৪৭ বলে ৮টি চার আর দুটি ছক্কার সাহায্যে ৬৭ রান করে অপরাজিত থাকেন ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম। ২৮ বলে ৫টি চার আর এক ছক্কায় ৩৩ রান করে অপরাজিত থাকেন তাওহিদ হৃদয়। ৩ বলে ১ আর ২৪ বলে ২১ রানে ফেরেন লিটন দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত।

খেলা শেষে অধিনায়ক শান্ত বলেন, ‘গত দুই দিন সত্যিই আমরা কঠোর পরিশ্রম করেছি। তানজিদের ব্যাটিংয়ের ধরন দলের জন্য সহায়ক হয়েছে এবং আশা করছি সে এ ফর্ম অব্যাহত রাখবে। তাওহিদ হৃদয়ও ভালো করেছে। বিশেষ করে ইনিংস শেষ শেষ করে আসায় তানজিদের ওপর আমি দারুন খুশি।’

পরিসংখ্যান
এখন পর্যন্ত ২১টি টি-২০ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে। পরিসংখ্যানে এগিয়ে বাংলাদেশই। ২০ ম্যাচের ১৪টিতেই জয় বাংলাদেশের, ৭ ম্যাচে জিতেছে জিম্বাবুয়ে। সব মিলিয়ে ৭টি দ্বিপাক্ষিক টি-২০ সিরিজ খেলেছে দুই দল। সেখানেও এগিয়ে শান্তরা। বাংলাদেশের জয় তিনটি সিরিজে, জিম্বাবুয়ের জয় একটিতে, বাকি তিনটি শেষ হয়েছে সমতায়।
সবশেষ ম্যাচে বোলারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পাশাপাশি তামিমের দৃঢ়তা বাড়তি আত্মবিশ্বাসী জোগাবে বাংলাদেশকে। অন্যদিকে ব্যাটারদের হতশ্রী দশা থেকে নিশ্চয়ই মুক্তি পেতে চাইবে জিম্বাবুয়ে।

সম্ভাব্য একাদশ

বাংলাদেশ: লিটন দাস, তানজিদ হাসান তামিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, তাওহিদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ, জাকের আলি, শেখ মেহেদী, রিশাদ হোসেন, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, শরিফুল ইসলাম ও তাসকিন আহমেদ।

জিম্বাবুয়ে: জয়লর্ড গুম্বি, ক্রেইগ আরভিন, ব্রায়ান বেনেট, শন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা, ক্লাইভ মাদান্দে, লুক জঙ্গুই, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, রায়ান বার্ল, ব্লেসিং মুজারাবানি, রিচার্ড এনগারাভা।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টানা দ্বিতীয় জয়ে চোখ বাংলাদেশের

আপডেট সময় : ১১:০১:২১ পূর্বাহ্ন, রবিবার, ৫ মে ২০২৪

প্রথম ম্যাচে জয় পাওয়ায় দ্বিতীয় ম্যাচেও টানা জয় চায় বাংলাদেশ। আজ সন্ধ্যা ৬টায় চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ স্টেডিয়ামে সিরিজের দ্বিতীয় টি-২০ তে মুখোমুখি হবে দুই দল। টানা দুই জয়ে সিরিজে ২-০ তে এগিয়ে যাবে বাংলাদেশ নাকি জয় দিয়ে সমতা ফেরাবে জিম্বাবুয়ে, জানা যাবে আজই।

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের আগে নিজেদের প্রস্তুত করতে ঘরের মাঠে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ খেলছে বাংলাদেশ দল। ইতোমধ্যে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম ম্যাচে টাইগাররা ৮ উইকেটে বড় জয় পেয়েছিল। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে আজ (রোববার) সন্ধ্যা ৬টায় সিরিজের দ্বিতীয় টি-টোয়েন্টিতে মুখোমুখি হচ্ছে দু’দল।

প্রথম ম্যাচে দারুণ বোলিং করেন দুই তারকা পেসার সাইফউদ্দিন ও তাসকিন আহমেদ। দুই জনে নেন ৩টি করে উইকেট। ২ উইকেট নেন শেখ মাহেদি হাসান। তাদের বোলিং তোপে ২০ ওভারে মাত্র ১২৪ রানেই অলআউট হয় জিম্বাবুয়ে। দলের হয়ে সর্বোচ্চ ৪৩ রান করেন ক্লেভ ম্যাডানড। ৩৪ রান করেন ওয়েলিংটন মাসাকাদজা।

টার্গেট তাড়া করতে নেমে তানজিদ হাসান তামিম ও তাওহিদ হৃদয়ের অনবদ্য ব্যাটিংয়ে ২৮ বল হাতে রেখেই ৮ উইকেটের দাপুটে জয় পায় বাংলাদেশ। দলের জয়ে ৪৭ বলে ৮টি চার আর দুটি ছক্কার সাহায্যে ৬৭ রান করে অপরাজিত থাকেন ওপেনার তানজিদ হাসান তামিম। ২৮ বলে ৫টি চার আর এক ছক্কায় ৩৩ রান করে অপরাজিত থাকেন তাওহিদ হৃদয়। ৩ বলে ১ আর ২৪ বলে ২১ রানে ফেরেন লিটন দাস ও নাজমুল হোসেন শান্ত।

খেলা শেষে অধিনায়ক শান্ত বলেন, ‘গত দুই দিন সত্যিই আমরা কঠোর পরিশ্রম করেছি। তানজিদের ব্যাটিংয়ের ধরন দলের জন্য সহায়ক হয়েছে এবং আশা করছি সে এ ফর্ম অব্যাহত রাখবে। তাওহিদ হৃদয়ও ভালো করেছে। বিশেষ করে ইনিংস শেষ শেষ করে আসায় তানজিদের ওপর আমি দারুন খুশি।’

পরিসংখ্যান
এখন পর্যন্ত ২১টি টি-২০ ম্যাচে মুখোমুখি হয়েছে বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে। পরিসংখ্যানে এগিয়ে বাংলাদেশই। ২০ ম্যাচের ১৪টিতেই জয় বাংলাদেশের, ৭ ম্যাচে জিতেছে জিম্বাবুয়ে। সব মিলিয়ে ৭টি দ্বিপাক্ষিক টি-২০ সিরিজ খেলেছে দুই দল। সেখানেও এগিয়ে শান্তরা। বাংলাদেশের জয় তিনটি সিরিজে, জিম্বাবুয়ের জয় একটিতে, বাকি তিনটি শেষ হয়েছে সমতায়।
সবশেষ ম্যাচে বোলারদের দুর্দান্ত পারফরম্যান্সের পাশাপাশি তামিমের দৃঢ়তা বাড়তি আত্মবিশ্বাসী জোগাবে বাংলাদেশকে। অন্যদিকে ব্যাটারদের হতশ্রী দশা থেকে নিশ্চয়ই মুক্তি পেতে চাইবে জিম্বাবুয়ে।

সম্ভাব্য একাদশ

বাংলাদেশ: লিটন দাস, তানজিদ হাসান তামিম, নাজমুল হোসেন শান্ত, তাওহিদ হৃদয়, মাহমুদউল্লাহ, জাকের আলি, শেখ মেহেদী, রিশাদ হোসেন, মোহাম্মদ সাইফুদ্দিন, শরিফুল ইসলাম ও তাসকিন আহমেদ।

জিম্বাবুয়ে: জয়লর্ড গুম্বি, ক্রেইগ আরভিন, ব্রায়ান বেনেট, শন উইলিয়ামস, সিকান্দার রাজা, ক্লাইভ মাদান্দে, লুক জঙ্গুই, ওয়েলিংটন মাসাকাদজা, রায়ান বার্ল, ব্লেসিং মুজারাবানি, রিচার্ড এনগারাভা।