ঢাকা ১১:৪৪ অপরাহ্ন, শুক্রবার, ১৪ জুন ২০২৪, ৩১ জ্যৈষ্ঠ ১৪৩১ বঙ্গাব্দ

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টাইগারদের সিরিজ জয়ের মিশন

স্পোর্টস রিপোর্ট
  • আপডেট সময় : ১১:০৯:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪ ১০ বার পড়া হয়েছে
ডেইলি আর্থ অনলাইনের সর্বশেষ নিউজ পেতে অনুসরণ করুন গুগল নিউজ (Google News) ফিডটি

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুটিতে বড় ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ দল। তৃতীয় ম্যাচে আজ মঙ্গলবার মাঠে নামতে যাচ্ছে টাইগাররা। আর এই ম্যাচ জিততে পারলে নাজমুল হোসেন শান্তর দল নিশ্চিত করবে সিরিজ জয়। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর তিনটায়।

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচেই বাংলাদেশ জিতেছে রানতাড়া করে। সে রানতাড়াও যে খুব সাবলীল হয়েছে তাও নয়। প্রথম দুই ম্যাচেই বড় স্কোর করতে ব্যর্থ হয়েছেন দুই নির্ভরযোগ্য তারকা লিটন কুমার দাস এবং নাজমুল হোসেন শান্ত। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট হলেও টাইগার ব্যাটারদের ধীরগতির ব্যাটিং নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

ম্যাচের আগের দিন গতকাল টাইগারদের সহকারী কোচ নিক পোথাস অবশ্য জানালেন প্রথমদিকে চ্যালেঞ্জিংয়ের কথা, ‘উইকেট ভালো, তবে প্রথম ১০ ওভার দুই দলই সংগ্রাম করছে। প্রথম ১০ ওভার চ্যালেঞ্জিং, মোটেও সহজ নয়। বোলিংও ভালো হচ্ছে। জিম্বাবুয়ের ২ জন কোয়ালিটি নতুন বলের বোলার আছে। আমার মনে হয় তাদের বিপক্ষে আমাদের ছেলেরা ভালোই করেছে। উইকেট দেখে যতটা সহজ মনে হচ্ছে, শুরুর দিকে আসলে মোটেও ততটা সহজ নয়।’

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পরই পরীক্ষা নিরীক্ষা চালাবে বাংলাদেশ দাবি পোথাসের, ‘এই ম্যাচগুলো গুরুত্বপূর্ণ, ছেলেরা বিশ্বকাপের জন্য তৈরি হচ্ছে। আন্তর্জাতিক সিরিজ মানেই আপনাকে জেতার জন্য খেলতে হবে। এক্সপেরিমেন্টের আগে ভালো খেলতে হবে। সিরিজ জয়ের পর পরীক্ষানিরীক্ষার আশ্রয় নেওয়া যেতে পারে। এখন যদি আমরা পরীক্ষানিরীক্ষা করতে গিয়ে ম্যাচ হেরে যাই তাহলে তা বুমেরাং হয়ে যাবে।’

পরের অংশেই আবার জানালেন সাংবাদিকদের নিয়েও ভাবনা আছে টিম ম্যানেজমেন্টের, ‘জিম্বাবুয়ের কাছে হেরে গেলে আপনারা কী লেখালেখি করবেন? আবার আমরা যদি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিতি, তখনই বা কী লিখছেন? আপনাদের প্রত্যাশার কথাও আমাদের ভাবতে হয়। সেই সাথে বিশ্বকাপের প্রস্তুতিও।’

বিশ্বকাপের উইকেট প্রসঙ্গে পোথাস বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের উইকেট এখানকার মতো হবে না। আমরা ভালো উইকেটে খেলব। এই উইকেটগুলও ভালো তবে শুরুতে বোলারদের সহায়তা দিচ্ছে। কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বের সেরা ক্রিকেটাররা দ্রুত কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নেয়। সেদিক থেকে ছেলেরা ভালো করছে।’

সিরিজ জয়ের এই ম্যাচেও বাংলাদেশ দলে পরিবর্তন আসার সুযোগ কম। অন্তত কোচ নিক পোথাসের বক্তব্য সেদিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। অবশ্য বোলিং লাইনআপের দাপুটে পারফর্ম্যান্সে খুব বেশি পরিবর্তন চাইবেন না কেউই। তবে ব্যাট হাতে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ঠিক কেমন করেন, তার প্রতিচ্ছবিও খুব একটা ভালোভাবে দেখা যায়নি।

সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে এসে দেশি ব্যাটারদের কাছ থেকে টি-টোয়েন্টিসুলভ বিগ হিটিং দেখা যাবে কিনা, তাইই বড় প্রশ্ন।

নিউজটি শেয়ার করুন

আপনার মন্তব্য

Your email address will not be published. Required fields are marked *

আপনার ইমেইল এবং অন্যান্য তথ্য সংরক্ষন করুন

আপলোডকারীর তথ্য
ট্যাগস :

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে টাইগারদের সিরিজ জয়ের মিশন

আপডেট সময় : ১১:০৯:০৭ পূর্বাহ্ন, মঙ্গলবার, ৭ মে ২০২৪

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে পাঁচ ম্যাচ টি-টোয়েন্টি সিরিজের প্রথম দুটিতে বড় ব্যবধানে জিতেছে বাংলাদেশ দল। তৃতীয় ম্যাচে আজ মঙ্গলবার মাঠে নামতে যাচ্ছে টাইগাররা। আর এই ম্যাচ জিততে পারলে নাজমুল হোসেন শান্তর দল নিশ্চিত করবে সিরিজ জয়। চট্টগ্রামের জহুর আহমেদ চৌধুরি স্টেডিয়ামে ম্যাচটি শুরু হবে দুপুর তিনটায়।

সিরিজের প্রথম দুই ম্যাচেই বাংলাদেশ জিতেছে রানতাড়া করে। সে রানতাড়াও যে খুব সাবলীল হয়েছে তাও নয়। প্রথম দুই ম্যাচেই বড় স্কোর করতে ব্যর্থ হয়েছেন দুই নির্ভরযোগ্য তারকা লিটন কুমার দাস এবং নাজমুল হোসেন শান্ত। টি-টোয়েন্টি ফরম্যাট হলেও টাইগার ব্যাটারদের ধীরগতির ব্যাটিং নিয়ে উঠেছে প্রশ্ন।

ম্যাচের আগের দিন গতকাল টাইগারদের সহকারী কোচ নিক পোথাস অবশ্য জানালেন প্রথমদিকে চ্যালেঞ্জিংয়ের কথা, ‘উইকেট ভালো, তবে প্রথম ১০ ওভার দুই দলই সংগ্রাম করছে। প্রথম ১০ ওভার চ্যালেঞ্জিং, মোটেও সহজ নয়। বোলিংও ভালো হচ্ছে। জিম্বাবুয়ের ২ জন কোয়ালিটি নতুন বলের বোলার আছে। আমার মনে হয় তাদের বিপক্ষে আমাদের ছেলেরা ভালোই করেছে। উইকেট দেখে যতটা সহজ মনে হচ্ছে, শুরুর দিকে আসলে মোটেও ততটা সহজ নয়।’

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে সিরিজ জয়ের পরই পরীক্ষা নিরীক্ষা চালাবে বাংলাদেশ দাবি পোথাসের, ‘এই ম্যাচগুলো গুরুত্বপূর্ণ, ছেলেরা বিশ্বকাপের জন্য তৈরি হচ্ছে। আন্তর্জাতিক সিরিজ মানেই আপনাকে জেতার জন্য খেলতে হবে। এক্সপেরিমেন্টের আগে ভালো খেলতে হবে। সিরিজ জয়ের পর পরীক্ষানিরীক্ষার আশ্রয় নেওয়া যেতে পারে। এখন যদি আমরা পরীক্ষানিরীক্ষা করতে গিয়ে ম্যাচ হেরে যাই তাহলে তা বুমেরাং হয়ে যাবে।’

পরের অংশেই আবার জানালেন সাংবাদিকদের নিয়েও ভাবনা আছে টিম ম্যানেজমেন্টের, ‘জিম্বাবুয়ের কাছে হেরে গেলে আপনারা কী লেখালেখি করবেন? আবার আমরা যদি জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিতি, তখনই বা কী লিখছেন? আপনাদের প্রত্যাশার কথাও আমাদের ভাবতে হয়। সেই সাথে বিশ্বকাপের প্রস্তুতিও।’

বিশ্বকাপের উইকেট প্রসঙ্গে পোথাস বলেন, ‘যুক্তরাষ্ট্রের উইকেট এখানকার মতো হবে না। আমরা ভালো উইকেটে খেলব। এই উইকেটগুলও ভালো তবে শুরুতে বোলারদের সহায়তা দিচ্ছে। কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নেওয়া গুরুত্বপূর্ণ। বিশ্বের সেরা ক্রিকেটাররা দ্রুত কন্ডিশনের সাথে মানিয়ে নেয়। সেদিক থেকে ছেলেরা ভালো করছে।’

সিরিজ জয়ের এই ম্যাচেও বাংলাদেশ দলে পরিবর্তন আসার সুযোগ কম। অন্তত কোচ নিক পোথাসের বক্তব্য সেদিকেই ইঙ্গিত দিচ্ছে। অবশ্য বোলিং লাইনআপের দাপুটে পারফর্ম্যান্সে খুব বেশি পরিবর্তন চাইবেন না কেউই। তবে ব্যাট হাতে বাংলাদেশের ক্রিকেটাররা ঠিক কেমন করেন, তার প্রতিচ্ছবিও খুব একটা ভালোভাবে দেখা যায়নি।

সিরিজের তৃতীয় ম্যাচে এসে দেশি ব্যাটারদের কাছ থেকে টি-টোয়েন্টিসুলভ বিগ হিটিং দেখা যাবে কিনা, তাইই বড় প্রশ্ন।